প্রেসাইস মেটাল

16 টি ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম দিয়ে - 300 বেশি ইন্সট্রুমেন্ট এবং 6 টি অ্যাসেট ক্লাশে
ফরেক্স, স্টক, কমোডিটিস, প্রেসাইস মেটাল, এনার্জি এবং ইকোইটি ইন্ডিসেসে XM এর সাথে ট্রেড করুন।

প্রেসাইস মেটালস - স্প্রেড/শর্তসুমহ

স্পট মেটাল ইন্সট্রুমেন্ট

কারেন্সি পেয়ার মিনিমাম প্রাইছ
ওঠানামা
স্প্রেড
এজ লো এজ ***
গড়ে স্প্রেড*** লং সোয়াপের মূল্য
(পয়েন্ট)**
শর্ট সোয়াপের মূল্য
(পয়েন্ট)**
1 লটের ভ্যালূ লিমিট এবং স্টপ লেভেল***
GOLD 0.01 0.4 0.47 -10.53 -1.32 100 oz 1
SILVER 0.001 0.037 0.048 -5.5 -5.01 5000 oz 0.14
কারেন্সি পেয়ার মিনিমাম প্রাইছ
ওঠানামা
স্প্রেড
এজ লো এজ ***
গড়ে স্প্রেড*** লং সোয়াপের মূল্য
(পয়েন্ট)**
শর্ট সোয়াপের মূল্য
(পয়েন্ট)**
1 লটের ভ্যালূ লিমিট এবং স্টপ লেভেল***
GOLDmicro 0.01 0.4 0.47 -10.53 -1.32 1 oz 1
SILVERmicro 0.001 0.037 0.048 -5.5 -5.01 50 oz 0.14
কারেন্সি পেয়ার মিনিমাম প্রাইছ
ওঠানামা
গড়ে স্প্রেড*** লং সোয়াপের মূল্য
(পয়েন্ট)**
শর্ট সোয়াপের মূল্য
(পয়েন্ট)**
1 লটের ভ্যালূ লিমিট এবং স্টপ লেভেল***
SILVER. 0.001 0.035 -5.5 -5.01 5000 oz 0.14
GOLD. 0.01 0.21 -10.53 -1.32 100 oz 1

গোল্ড এবং সিলভারের মার্জিন যেভাবে গণনা করা হয়ঃ লট X কন্ট্রাক সাইজ X মার্কেট প্রাইস / লেভারেজ ।

গোল্ড & সিলভার ট্রেডিং আওয়ার
(টাইম জোন জিএমটি +2, দয়া করে নোট করুন ডিএসটি প্রযোজ্য হতে পারে)

সোমবার – বৃস্পতিবার: 01:05 – 23:55
শুক্রবার: 01:05 – 23:50

অন্যান্য ধাতু

সিম্বল বিবরণ মিনিমাম প্রাইছ
ওঠানামা
মিনিমাম প্রাইস ওঠা নামার ভ্যালু স্প্রেড
এজ লো এজ
1 লটের ভ্যালূ মিনি./ম্যাক্স. ট্রেড সাইজ মার্জিন শতকরা লিমিট এবং স্টপ লেভেল***
PALL Palladium 0.10000 USD 1 4 10 Troy ounces 1/50 4.5 % 10
PLAT Platinum 0.10000 USD 1 3 10 Troy ounces 1/50 4.5 % 8
সিম্বল বিবরণ সার্ভারের সময় কাজের দিন সোমবার খোলা শুক্রবার বন্ধ
PALL Palladium GMT +3 01:05-23:55 01:05 23:10
PLAT Platinum GMT +3 01:05-23:55 01:05 23:10
ইন্সট্রুমেন্ট স্ট্যাটাস Nov
16
Dec
16
Jan
17
Feb
17
Mar
17
Apr
17
May
17
Jun
17
Jul
17
Aug
17
Sep
17
Oct
17
Palladium
(PALL)
ওপেন 29/08/16 28/11/16 24/02/17 29/05/17
Palladium
(PALL)
ক্লোজ অনলি 28/11/16 24/02/17 29/05/17
Palladium
(PALL)
এক্সপায়ার 29/11/16 27/02/17 30/05/17
Platinum
(PLAT)
ওপেন 22/09/16 28/12/16 29/03/17 28/06/17
Platinum
(PLAT)
ক্লোজ অনলি 28/12/16 29/03/17 28/06/17
Platinum
(PLAT)
এক্সপায়ার 29/12/16 30/03/17 29/06/17

* কারেন্ট মার্কেট প্রাইস থেকে স্টপ লস এবং টেইক প্রফিট অর্ডার নেয়ার মিনিমাম লেভেল।

** আপনি যদি পরের ট্রেডিং দিনের জন্য একটি ওপেন পজিশন ধরে রাখেন তাহলে কারেন্সি পেয়ার দুই মুদ্রার সুদের হার পার্থক্য ভিত্তিতে গণনা করে আপনি অর্থ প্রদান বা আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্জন করেন। ট্রেডিং টার্মিনালে "swap" স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডিপোজিট কারেন্সীতে গননা করা হয় আর এটাকেই "swap" বলা হয়।০০:০০ (জিএমটি +2 জোন, দয়া করে নোট করুন ডিএসটি প্রযোজ্য হতে পারে) অপারেশন পরিচালিত হয় এবং কয়েক মিনিট লাগতে পারে। বুধবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত তিন দিনের সোয়াপ চার্জ করা হয্।

*** এখানে দেখানো গড় স্প্রেড সারা দিন গণনা করা হয়। তারা স্বাভাবিক বাজারের অবস্থার অধীনে সংকীর্ণ হয়ে থাকে। যাইহোক, গুরুত্বপূর্ণ নিউজ ঘোষণা, রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা, অপ্রত্যাশিত ঘটনা বাজারের অবস্থার অস্থিতিশীল করে তোলে বা একটি বেবসায়িক দিনের বন্ধের সময় এবং উইকএন্ডে যখন লিকুওইডিটি কমে থাকে এই সকল কারনে স্প্রেড চওড়া বা বেড়ে যেতে পারে। যখন আপনি আমাদের সাথে ট্রেড করেন ট্রেডিং পয়েন্ট আপনার কাউন্টার পার্টি। আপনার ট্রেডগুলো মেলানো হয় এবং পূর্বনির্ধারিত প্রান্তিক মান উপরে কোনো পরবর্তী এক্সপোজার বর্তমান মার্কেট স্প্রেডের আমাদের পার্টনার ব্যাংকের (আমাদের লিকুইডিটি প্রদানকারীরা) সঙ্গে হেজ করা হয়। যাইহোক, অস্থিতিশীল এবং লিকুইট মার্কেটের অবস্থার সময় আমাদের লিকুইডিটি প্রদানকারীদের স্বাভাবিক স্প্রেড চেয়ে বড় কোট করে থাকে।

সিএফডি’র মার্জিন যেভাবে গণনা করা হয়ঃ লট X কন্ট্রাক সাইজ X ওপেনিং প্রাইস X মার্জিন শতকরা, মনে রাখবেন মার্জিন আপনার ট্রেডিং অ্যাকাউন্টের লেভারেজের উপর ভিত্তি করে গণনা করা হয় না।

আপনি যখন সিএফডিতে কোন পজিশানে হেজ করে তখন 50% মার্জিন হয়।

ক্যালেন্ডার তারিখ ইঙ্গিতমূলক এবং পরিবর্তন সাপেক্ষে।

গোল্ড ট্রেডিং এবং প্রেসাইস মেটাল মার্কেট

চুক্তি ভিত্তিক ট্রেডযোগ্য পণ্য হিসেবে গোল্ড ট্রেডিং এবং অন্যান্য প্রেসাইস মেটাল, ক্রুড অয়েল সহ, তামা বা পেট্রোলিয়াম হল হার্ড পণ্য যা কমোডিটি মার্কেটে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। চুক্তি ভিত্তিক ট্রেডযোগ্য পণ্যের মধ্যে আরও আছে ফিউচার, স্পট প্রাইস, ফরওয়ার্ড এবং অপশন।

এটি একটি মধ্যস্ততাকারী যার মাধ্যমে মার্কেটে, কমোডিটি অথবা ফিউচার এক্সচেঞ্জে দরকষাকষি করার জন্য সুযোগ করে দেয়। মার্কেট হাই ইকোনমিক ভ্যালু ও স্থায়িত্ব থাকার ফলে অনলাইনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে বিনিয়োগকারীরা প্রেসাইস মেটাল, গোল্ড, সিলভার, প্লাটিনাম এবং পাল্লাডিউম সহ এমন 50 টির অধিক মেজর কমোডিটি মার্কেট অ্যাক্সেস করতে পারবে। অন্যদিকে, এশিয়া হল বিশ্বের সবচেয়ে প্রেসাইস মেটাল মার্কেট (এই ধরনের কমোডিটি জন্য চীনা, ইন্ডিয়া এবং সিঙ্গাপুর হল সবচেয়ে বড় কনজিউমার), ইউরোপিয়ান এবং আমেরিকান হল বিশ্বের সবচেয়ে বড় কমোডিটি মার্কেট, যা অনেক দিন থেকে এই দুটি অঞ্চলের অধীনে রয়েছে, যেখানে কানাডা ও জার্মানিতে রয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রেসাইস মেটাল কোম্পানি।

ফিউচার এক্সচেঞ্জ মার্কেট, যেখানে ছুটির ব্যাতিত দিনে 24 ঘণ্টা কারেন্সি, স্টক ইন্ডিসেস, গোল্ড ও অন্যান্য প্রেসাইস মেটাল পাশাপাশি এই ফিউচারেও ট্রেড করা যায়। সাধারণত, প্রেসাইস মেটাল প্রধানত দুটি উপায়ে কিনা হয়ঃ স্পট কন্ট্রাক এবং ফিউচার কন্ট্রাকে। স্পট কন্ট্রাক সধারনত সরাসরি দেখা করে একটি নির্দিষ্ট তারিখে (ট্রেডের তারিখ অনুসারে সাধারণত দুই বিজনেস দিনের পর) বাই বা সেল করা হয়, অন্যদিকে ফিউচারগুলো হল আদর্শায়িত কন্ট্রাক, পারস্পরিক দুই পক্ষ দ্বারা একমতের উপর ভিত্তি করে ভবিষ্যতে পরের কোন তারিখে (যাকে বলা হয় ডেলিভারি তারিখ) বাই বা ডেলিভারি এবং একটি নির্দিষ্ট পরিমাণে পেমেন্ট ও একই মানে এবং একটি মূল্যে একমত জন্য (ফিউচার মূল্য বলা হয়) এর প্রেসাইস মেটাল বাই ও সেল করা হয়। ফিউচারগুলো অনলাইনে সরাসরি কোন মালিকানা না হয়ে বাই বা সেল করা হয়।

ট্রেডিং গোল্ড ও প্রেসাইস মেটাল

সবচেয়ে বেশি ট্রেডকৃত প্রেসাইস মেটাল হল গোল্ড, প্লাটিনাম, পাল্লাডিউম ও সিলভার এই পণ্যের ওপর উচ্চ ট্রেডিং ভলিউম তাদের অপরিবর্তিত অন্তর্নিহিত মূল্য আরোপিত নির্বিশেষে অর্থনৈতিক অবস্থার কারনে বেশি ট্রেড করা হয়। গত কয়েক দশকে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ হিসেবে অনলাইন কেনার সুবিধার কারনে এবং এমনকি শারীরিক মালিকানা, প্রেসাইস মেটালে বিনিয়োগ অনেক বেশি বেড়ে গেছে। যেহেতু ডেরাইভেটিভস এবং ব্যবসায়িক বিনিময় চুক্তি একটি কম মূলধন-নিবিড় এবং সহজ তাদের মূল্যের উপর একটি অবস্থান নিতে প্রেসাইস মেটাল ট্রেডিং এছাড়াও স্বল্পমেয়াদী বিনিয়োগের কারনে তাদের জন্য সুযোগ করে দেয়া হয়েছে।

গোল্ড ট্রেডিং প্রাইস অন্যান্য কমোডিটির মত না যা উৎপাদন এবং খরচে মাত্রার উপর নির্ভর করে, যা বেশির ভাগ সময়েই রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও মার্কেট অনিশ্চয়তার উপর নির্ভর করে অন্যান্য মার্কেটের বিপরীতে হেজ ফাংকশান হিসেবে কাজ করে। গোল্ডের পাশাপাশি প্লাটিনাম, পল্লাডিউম এবং সিলভারও অনেক বেশি ট্রেডকৃত পণ্য যা মনিটারী অনিশ্চয়তার উপর নির্ভর করে বিনিয়োগকারীরা ট্রেড করে থাকে।

অনেক কারন আছে যেইগুলো প্রাইস মেটাল মার্কেট বেশি প্রভাবিত যার ফলে মার্কেট অনেক বেশি প্রভাবিত করে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদানগুলির একটি বিশ্বব্যাপী আর্থিক প্রতিষ্ঠান, যার বিনিয়োগ প্রকৃতিতে অনুমানভিত্তিক এবং উর্ধ্বগামী বা নিম্নগামী মূল্যের সৃষ্টি করতে পারে। মার্কেটকে প্রভাবিত করে এমন আরেকটি কারণ হল এন্ড-ইউজার প্রবণতা, প্রধানত অলংকার ক্রেতাদের দ্বারা আলোড়ন সৃষ্টি হয়: অলংকারের চাহিদা প্রাইস মেটালের বেশি চাহিদার কারনে এদের দান বেশি উঠা নামা করে। এছাড়াও অর্থনীতি মার্কেট প্রাইসের উপর অনেক বেশি প্রভাব করে। বিশ্বব্যাপী একটি দেশের শক্ত ও স্বনির্ভর অর্থনীতিতে নির্ভর করে সেই দেশের প্রেসাইস মেটাল জুয়েলারি এবং গোল্ডের চাহিদার উপরে নির্ভর করে। যখন একজন বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ করার লক্ষ্যে একটি বিকল্প উচ্চ ঝুঁকি সম্পন্ন ইন্সট্রুমেন্টকে অনুসন্ধান করে, নির্দিষ্ট বহুমূল্য ধাতুর দাম কম হলেও অন্যরা মূল্যের উপরে উঠতে থাকে। এখানেই শেষ নয়, কিছু ফিনান্সিয়াল ইন্সট্রুমেন্ট শুধু প্রেসাইস মেটালের কারনে হয় না প্রাইসের উঠানামা এর চাহিদা

এক নজরে গোল্ড ট্রেডিং ও প্রেসাইস মেটালের ইতিহাস

বিশেষ করে প্রেসাইস মেটাল এবং গোল্ড হল একটি সম্পদের প্রতীক হিসেবে কাজ করে। প্রাগৈতিহাসিক যুগে, যখন স্বর্ণ বিনিময়ের উপায় হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছিল, এবং শতাব্দীর পর শতাব্দী জুড়ে, কয়েন, বা বার এবং সংশোধন করা হয়েছে বিশুদ্ধতা এবং ওজন বালন আকারে কিনা, গোল্ড একটি মূল্যবান এবং আরো অনেক চাওয়া-পরে সম্পদ হিসেবে রয়েছে। প্রথম স্বর্ণের কয়েন 600 বিসিতে বিকশিত করা হয় এবং আর্থিক এক্সচেঞ্জ (স্বর্ণমান) জন্য তার ব্যবহার 1930 সাল পর্যন্ত চলেছিল। একটি বৈদ্যুতিকভাবে পরিবাহী এবং নমনীয় ধাতু হিসাবে, সোনা অন্যান্য উপাদান অপ্রতিক্রিয়াশীল, এবং এটা অলংকার, বাণিজ্যিক রসায়ন এবং ওষুধ ইলেকট্রনিক্স থেকে বিভিন্ন শিল্পে ব্যবহার করা হয়। 1970 সালের পর গোল্ডকে ফিয়াট কারেন্সিতে প্রতিস্থাপন করা হয়, কিন্তু এটা এখনও একটি সঠিক বিনিয়গের সম্পদ হিসেবে ধরা হয়।

গোল্ডের পাশাপাশি, সিলভারও 4 হাজার বছরের বেশি সময় ধরে 19 শতক পর্যন্ত মনিটারি এক্সচেঞ্জ হিসেবে ব্যাবহার হয়ে আসছে। শিল্প, বাণিজ্যিক, এবং ভোক্তার চাহিদার কারনে সিলভার একটি শক্তিশালী বিনিয়োগের সম্পদ হিসেবে রুপ নিয়েছে এবং সিলভারে ফিউচার মত ডেরাইভেটিভস বিশ্বের বিভিন্ন বিনিময় বাজারে লেনদেন হয়।

গোল্ড ট্রেডিং ও সিলভার ট্রেডিং তুলনায় হিসাবে, প্রাচীন সভ্যতা থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত সিলভার একটি ভাল বিনিয়োগের সম্পদ হিসেবে ব্যাবহার হয়ে আসছে, আর্থিক ক্ষেত্রে প্ল্যাটিনাম এবং পাল্লাডিউমের একটি সংক্ষিপ্ত ইতিহাস রয়েছে। তবে তাদের ঘাটতি এবং বেশ কিছু শিল্প এলাকায় বার্ষিক খনি উৎপাদনের পরিমাণ, তাদের বিভিন্ন ব্যবহারসমূহ সহ মাঝে মাঝে কারণে তারা একটি মূল্য সোনা চেয়ে আরও বেশি দামে বিক্রি করা হয়, যা গোল্ডের চেয়ে 10 গুন দুর্লভ, প্লাটিনামকে সম্পদের সাথে যুক্ত করা হয় এবং সাদা সোনার-প্লাটিনাম সংকর প্রাক-কলম্বিয়ান সভ্যতা সময় ব্যবহার করা হয়েছে। ইউরোপে প্ল্যাটিনাম প্রথম রেফারেন্স 16 শতাব্দীর দিকে প্রদর্শিত হয় এবং 18 শতকের পর থেকে এটি অলংকার, মোটর এবং রাসায়নিক শিল্প, দন্তচিকিৎসা এবং এমনকি ওষুধ ব্যবহার করা হয়েছে।

প্ল্যাটিনামের মত, পাল্লাডিউমও প্রযুক্তিতে একটি অপরিহার্য ভূমিকা পালন করে আসছে। ইউরোপে তা 19 শতকে আবিস্কৃত হওয়ার পর থেকে, পাল্লাডিউমের চাহিদা বিশ্বব্যাপী চাহিদা মূলত বৃদ্ধি পেয়েছে, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এটি অটোমোবাইল শিল্প ছারাও এটি ব্যাপকভাবে ঔষধ, বৈদ্যুতিক শিল্প, অলংকার ব্যবহার করা হয়, এবং একটি বিনিয়োগ সম্পদ হিসেবেও ব্যাবহার করা হয়েছে। যোগান ও চাহিদা (যেমন মূল্য বাজারে সংকল্প) -এর কারণে টেকসই অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা সময়ে প্ল্যাটিনাম এবং পাল্লাডিউমের মূল্য গোল্ডের সমমান অথবা তার চেয়ে বেশি হয়ে যায়। তাদের মূল্যের অর্থনৈতিক অস্থিরতার সময়ে স্বর্ণের দামের চেয়ে পিছিয়ে পরতে পারে, গোল্ড বিনিয়োগ করতে আরো স্থিতিশীল ধাতু করে।

গোল্ড এবং প্রেসিয়েস মেটাল হচ্ছে এইসময়ের ট্রেড

সেই 1970 এর দশক থেকে প্রেসিয়েস মেটাল অন্যতম একটি ট্রেডিং কমোডিটি। কারেন্সি এক্সচেঞ্জে বা ফরেক্সের পাশাপাশি, গোল্ড এবং অন্যান্য প্রেসিয়েস মেটালে দীর্ঘমেয়াদী ইনভেস্টমেন্টে মুদ্রাস্ফীতি বা অর্থনৈতিক / রাজনৈতিক অনিশ্চয়তার সময়ে একটি জনপ্রিয় পোর্টফোলিও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা।

ফিউচার কনট্র্যাক্ট সাধারণত সিদ্ধান্তমূলক তথাকথিত কনট্র্যাক্ট, অর্থাৎ যার মূল্য মূল বিনিয়োগ থেকে সংগৃহীত। প্রেসিয়েস মেটালে বিনিয়গের মূল লক্ষ্য হচ্ছে ভবিষ্যৎ ঝুঁকি হ্রাশ করা, যেখানে বায়ার এবং সেলারের হাতে নিয়ন্ত্রন থাকে অগ্রিম মূল্যহ্রাস অথবা মূল্যবৃদ্ধির স্থায়ী কোন মূল্য নির্ধারনের, এবং তারা উভয়েই প্রচণ্ড ও আকস্মিক মূল্যের ঊর্ধ্বগতি অথবা নিম্নগতির কারনে অবাঞ্ছিত ক্ষতির ব্যাপারে অগ্রিম্ভাবে নিশ্চিত থাকতে পারেন।

প্রেসিয়েস মেটালে দুইদিকেই ট্রেড করা যায়, যেখানে মার্কেট যদি ঊর্ধ্বগতিতে (bullish trend) থাকে তবে লং (going long) ট্রেড বাই দিয়ে মার্কেটে প্রবেশ করতে পারেন এবং একইভাবে ট্রেডটি সেল করে বের হয়েও আস্তে পারেন। যেখানে মার্কেট যদি নিম্নগতিতে (bearish trend) থাকে তবে সর্ট (going short) ট্রেড সেল দিয়ে মার্কেটে প্রবেশ করতে পারেন এবং একইভাবে ট্রেডটি বাই করে বের হয়েও আস্তে পারেন। যে সম্ভাবনা মাল্টিপল ফিউচার কনট্র্যাক্টে ট্রেড করার সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়, যা তৈরি করে দিচ্ছে আলাদাভাবে বিভিন্ন প্রাইস রেটে প্রবেশ করার ও নির্দিষ্ট প্রাইস রেটে বের হওয়ার অথবা অন্য কোন উপায়। উভয় দিকে ট্রেড করার ক্ষমতা বিনিয়োগকারীদের উর্ধ্বগামী বা নিম্নগামী মার্কেট মুভমেন্টে নির্বিশেষে লাভ করার সুযোগ করে দেয়।

কুকি নীতিঃ XM.COM কুকিজের ব্যাবহার, আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিটে করার মাধ্যমে আপনি এর সাথে সম্পর্কিত কুকিজের শর্তগুলো মেনে নিচ্ছেন। এই সম্পর্কে আরও জানতে, আমাদের কুকি ডিসক্লোজার ভিজিট করুন।